প্যাসিফিক জিন্স গ্রুপের চেয়ারম্যান নাছির উদ্দিন আর নেই: বিভিন্ন মহলের শোক

৪২৪

দেশের শীর্ষস্থানীয় পোষাক প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান প্যাসিফিক জিন্স গ্রুপের চেয়ারম্যান, বাংলাদেশ ইপিজেড ইনভেষ্টরস এসোসিয়েশন বেপজিয়ার চেয়ারম্যান, চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবের আজীবন দাতা সদস্য মো. নাছির উদ্দিন আর নেই। সোমবার বাংলাদেশ সময় বিকেল সোয়া তিনটায় ব্যাংককের একটি হাসপাতালে তিনি ইন্তেকাল করেন (ইন্নালিল্লাহি … রাজিউন)।

শীর্ষ এই ব্যবসায়ী ও মানবিক ব্যক্তির ইন্তেকালে চট্টগ্রামে সর্বস্থরে শোকের ছায়া নেমে এসেছে। চট্টগ্রাম সিটি মেয়র, বিজিএমইএ, চট্টগ্রাম চেম্বার, চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন চেম্বার, চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাব সহ বিভিন্ন সংগঠন ও ব্যক্তি আলাদা আলাদা বিবৃতিতে গভীর শোক প্রকাশ করে শোকাহত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান।

আগামী ২ মার্চ (বুধবার) তাঁর মরদেহ দেশে আনা হবে। ওইদিন সকাল সাড়ে ৯টায় সিইপিজেড চত্বরে, বাদে জোহর জমিয়তুল ফালাহ জাতীয় মসজিদ প্রাঙ্গন এবং বাদে আছর সীতাকুণ্ডের দক্ষিণ ছলিমপুরে ৩য় জানাজা শেষে পারিবারিক কবরস্থানে তাঁকে দাফন করা হবে বলে মরহুমের পারিবারিক সূত্র জানিয়েছে।

মোঃ নাছির উদ্দীন ১৯৫০ইং সনের ৫ই ডিসেম্বর চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ড উপজেলার ছলিমপুর ইউনিয়নের দক্ষিণ ছলিমপুর গ্রামের এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম ব্যবসায়ী পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। স্নাতক পাশ করার পর ১৯৭০ইং সালে তিনি পারিবারিক ব্যবসার সাথে সম্পৃক্ত হন।
১৯৮৪ইং সালে তিনি এনজেডএন গার্মেন্টস, এনজেডএন ফ্যাশন ওয়্যার এবং ডায়মন্ড ফ্যাশন ওয়্যার (প্রাঃ) লিঃ নামে তিনটি পোশাক শিল্প প্রতিষ্ঠানের স্থাপনের মাধ্যমে গার্মেন্টস শিল্পে পর্দাপন করেন।

১৯৯৩ইং সালে তিনি চট্টগ্রাম রপ্তানী প্রক্রিয়াকরণ অঞ্চলে প্যাসিফিক জিন্স লিঃ নামে সম্পূর্ন বাংলাদেশী মালিকানাধীন অত্যাধুনিক তৈরী পোশাক শিল্প প্রতিষ্ঠা করেন। নিজের যোগ্যতা ও নেতৃত্ব গুনে তিনি চট্টগ্রাম ইপিজেডে প্যাসিফিক জিন্স লিঃ, জিন্স ২০০০ লিঃ, ইউনিভার্সেল জিন্স লিঃ, প্যাসিফিক এক্সেসরিজ লিঃ, এনএইচটি ফ্যাশনস লিঃ এবং প্যাসিফিক ক্যাজুয়্যালস লিঃ প্রতিষ্ঠা করেন।

তিনি বাংলাদেশ সরকারের বিজনেস পারসন অব দি ইয়ার এবং বাণিজ্যিক গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি হিসেবে ১২ বার সম্মানিত হয়েছেন। তিনি শিল্প প্রতিষ্ঠান ছাড়াও চট্টগ্রামে বহু শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, স্বাস্থ্যসেবা সহ একাধিক সেবামূলক প্রতিষ্ঠান গড়ে তুলেছেন। বর্তমানে তাঁর প্রতিষ্ঠানগুলোতে পঁয়ত্রিশ হাজার মানুষ কর্মরত আছেন। যেখানে বাৎসরিক তিন কোটি পিস গার্মেন্টস পণ্য তৈরি হয়, যা বিশ্বের ২৫টি দেশে রপ্তানীর মাধ্যমে বাংলাদেশের অর্থনীতিতে বিরাট অবদান রাখছে।

৪৫ বৎসরের ব্যবসায়িক অভিজ্ঞতা থেকে তিনি সেবামূলক ব্যবসায়ও বিনিয়োগ করেন। এলক্ষ্যে তিনি চট্টগ্রামে একটি ফাইভ স্টার চেইন হোটেলের শাখা খোলার কাজ প্রায় শেষ করেন। তিনি সাধারণ মানুষের চিকিৎসায় একটি হাসপাতাল প্রতিষ্ঠারও সিদ্ধান্ত নেন। যা এখানকার মানুষের বিশ্বমানের চিকিৎসা সেবা নিশ্চিত করবে।

বর্তমানে প্যাসিফিক জিন্স গ্রুপ শুধুমাত্র তৈরী পোশাক খাতেই নয়, অন্যান্য ক্ষেত্রে ও অবদান রাখছে। অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ বাংলাদেশ সরকার বিজনেস পারসন অব দি ইয়ার এবং বাণিজ্যিক গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি হিসেবে সম্মানিত করেন মো নাছির উদ্দিনকে। তিনি দেশী বিদেশী বহু আন্তর্জাতিক খ্যাতি সম্পন্ন প্রতিষ্ঠান থেকে সম্মানিত হন।

বর্তমানে তিনি বাংলাদেশ ইপিজেড ইনভেষ্টরস এসোশিয়েশন (বেপজিয়া) এর চেয়ারম্যান, বিজিএমইএ এর সদস্য, চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাষ্ট্রির পরিচালক, জাপান বাংলাদেশ চেম্বার অব কমার্সের সদস্যসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের সাথে ওতপ্রোত ভাবে জড়িত।

এ ছাড়া তিনি ব্যবসা ক্ষেত্রে অসামান্য অবদানের জন্য বিজনেস পার্সন অব দি ইয়ার – ২০০৬। বাণিজ্যিক ভাবে গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি (সিআইপি) এবং ১২ বার জাতীয় রপ্তানী ট্রপি পুরস্কারে ভূষিত হন।

সিএসআর কার্যক্রম:
তিনি সক্রিয়ভাবে চিলড্রেন লিউকেমিয়া এফেক্টেড সার্পোট সার্ভিসের সাথে জড়িত এবং পূর্ণভাবে সহযোগিতা প্রদান করেন। তিনি অনুধাবন করেন যে শিক্ষা জাতির মেরুদন্ড, উন্নতির জন্য শিক্ষার কোন বিকল্প নাই এ লক্ষ্যে তিনি ব্যক্তিগতভাবে একটি কলেজ, দুইটি হাইস্কুল এবং দুইটি প্রাইমারী স্কুল প্রতিষ্ঠা করেন এবং পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠীর বিশেষত মেয়েদের জন্য তিনি বিশেষায়িত হাইস্কুল প্রতিষ্ঠা করেন যাহাতে সাতশত জন ছাত্রী বর্তমানে অধ্যয়নরত। তাঁহার প্রতিষ্ঠিত চারটি স্কুলে বর্তমানে ৩,১০০ জন বালক-বালিকা অধ্যয়ন করছে। এছাড়াও বর্তমানে প্রায় তিন হাজার ছাত্র-ছাত্রীকে বিভিন্নভাবে শিক্ষাবৃত্তি প্রদান করছেন।

তিনি চট্টগ্রামস্থ বেপজা পাবলিক স্কুল এন্ড কলেজের প্রতিষ্ঠাতা সদস্য এবং বিজিএমইএ কর্তৃক প্রতিষ্ঠিত হসপিটালের স্ট্যান্ডিং কমিটির চেয়ারম্যান হিসাবে আছেন। যেখানে তৈরীপোশাক শিল্পে কর্মরত কর্মীদের বিনামূল্যে চিকিৎসাসেবা প্রদান করা হয়।

মোঃ নাছির উদ্দীন স্ত্রী ছাড়াও তিন সন্তান রেখে যান। তাঁর বড় ছেলে সৈয়দ মোহাম্মদ তানভীর চিটাগাং চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির সহ-সভাপতি।

চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবের শোক: চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবের আজীবন দাতা সদস্য ও প্যাসিফিক জিন্স গ্রুপের চেয়ারম্যান মো.নাছির উদ্দিনের মৃত্যুতে চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবের নেতৃবৃন্দ গভীর শোক প্রকাশ করেছেন। এক বিবৃতিতে চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাব সভাপতি আলী আব্বাস এবং সাধারণ সম্পাদক চৌধুরী ফরিদ বলেন, মো নাসির উদ্দিনের মতো একজন প্রতিষ্ঠিত ব্যবসায়ীর মৃত্যুতে বাংলাদেশের পোশাক রপ্তানি খাতে অপূরণীয় ক্ষতি হয়েছে। প্রেস ক্লাব নেতৃবৃন্দ মরহুমের আত্মার মাগফেরাত কামনা করেন এবং শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান।

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো

মন্তব্যসমূহ বন্ধ করা হয়.