সড়ক দুর্ঘটনা কেড়ে নিল এক পরিবারের ৭জনের প্রাণ

১৭

চট্টগ্রামের হাটহাজারীতে মর্মান্তিক সড়ক দুর্ঘটনায় একই পরিবারের নারী ও শিশুসহ ৭জন নিহত হয়েছেন।

মঙ্গলবার (৭নভেম্বর) সকাল ১১টা ৪৫ মিনিটের দিকে চট্টগ্রাম-খাগড়াছড়ি সড়কের হাটহাজারীর চারিয়া এলাকায় এই ঘটনা ঘটে।

হাটহাজারী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মনিরুজ্জামান জানান, একটি বাস ও অটোরিকশার সংষর্ঘে শিশুসহ সাতজন প্রাণ হারিয়েছেন। আহত রয়েছেন আরও দুইজন। নিহতদের মধ্যে তিনজন নারী, একজন পুরুষ ও তিনটি শিশু। শিশুদের মধ্যে দুজন ছেলে। তাদের বাড়ি চন্দনাইশের দোহাজারী ইউনিয়নে বলে জানা গেছে। দুর্ঘটনার পর ঘটনাস্থল থেকে বাসচালক পালিয়ে গেছে।

নিহতরা হলেন, চন্দনাইশের দোহাজারী ইউনিয়নের ওমান প্রবাসী নারায়ন দাসের স্ত্রী রিতা দাস (৪০), দুই কন্যা শ্রাবন্তী দাস (১৮), বর্ষা দাস (১০), জমজ পুত্র দিপ (৩), দিগন্ত (৩)। বিপ্লব (২৭), বাপ্পা (৩২) ও নিহতদের পরিবারের সদস্য।

খবর পেয়ে হাটহাজারী মডেল থানা পুলিশ, ফায়ার সার্ভিস ও নাজিরহাট হাইওয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে লাশ উদ্ধার করে।

একই পরিবারের ৭জনের মৃত্যুর খবরে শোকহত হয়ে ওঠে চন্দনাইশের দোহাজারী ইউনিয়নের ওমান প্রবাসী নারায়ন দাসের বাড়ীতে। দুর্ঘটনার খবর বাড়ীতে পৌছার পর সেখানে স্বজনদের মদ্যে কান্নার রোল পড়ে যায়। জানা গেছে নিহতরা, ওমান প্রবাসী নারায়ন দাসের স্ত্রী রিতা দাস চার পুত্র-কন্যা স্বজনদের নিয়ে নগরীর অক্সিজেন থেকে অটোরিক্সাযোগে বাপের বাড়ী ফটিকছড়ি যাচ্ছিলেন। সেখানে তার প্রয়াত ঠাকুরমার শ্রাদ্ধ অনুষ্ঠানে যোগ দেয়ার কথা ছিল তাদের।

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো

মন্তব্যসমূহ বন্ধ করা হয়.